মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

১। ভোটার তালিকায় নাম স্থানান্তর :

ক।  কারো যদি এক নির্বাচনী  এলাকা হতে অন্য নির্বাচনী এলাকার ভোটার তালিকায় নাম স্থানান্তরের প্রয়োজন হয় ঃ

তাহলে করনীয় ঃ১৪ নম্বর ফরম পুরন করতে হবে এর সাথে জাতীয় পরিচয়ত্রের ফটোকপি ও ইউটিলিটি বিলের অনুলিপি/ভাড়ী ভাভার রশিদ/চৌকিদারী রশিদ/পৌরকর রশিদ/প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা/ওয়ার্ড কমিশনার/ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য প্রদত্ত প্রত্যয়নপত্র সংযুক্ত করে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে জমা দিতে হবে। (উল্লেখিত ফরম অত্র কার্যালয় হতে পাওয়া যাবে) 

খ। কারো যদি নির্বাচনী এলাকাসহ এক ভোটার এলকা হতে অন্য ভোটার এলাকায় নাম স্থানান্তরের প্রয়োজন হয় ঃ

তাহলে করনীয় ঃ১৩ নম্বর ফরম পুরন করতে হবে এর সাথে জাতীয় পরিচয়ত্রের ফটোকপি ও ইউটিলিটি বিলের অনুলিপি/ভাড়ী ভাড়ার রশিদ/চৌকিদারী রশিদ/পৌরকর রশিদ/প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা/ওয়ার্ড কমিশনার/ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান প্রদত্ত প্রত্যয়নপত্র সংযুক্ত করে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে জমা দিতে হবে। (উল্লেখিত ফরম অত্র কার্যালয় হতে পাওয়া যাবে)  

০২। কর্তন/মৃত জনিত ভোটারদের তালিকা কর্তনঃ 

তাহলে করনীয় ঃ১২ নম্বরফরম পুরন করে অত্র ফরমে তথ্যসংগ্রহকারী স্বাক্ষর ও চেয়ারম্যানের প্রত্যয়নসহ সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে জমা দিতে হবে।  (উল্লেখিত ফরম অত্র কার্যালয় হতে পাওয়া যাবে) 

০৩। ভোটার তালিকা হালনাগাদ করনঃ

বিঃ দ্রঃ এসকল কার্যক্রম (০১ থেকে ০৩ নং ক্রমিক এর কার্যক্রম) প্রতি বছর ১লা জানুয়ারী থেকে ৩১ জানুয়ারী হবে/বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন সচিবালয় নিদের্শক্রমে প্রয়োজনীয় সময় হবে।

০৪। ভোটার তালিকা সংক্রান্ত কাজ ঃ

ক। কারো যাদি জাতীয় পরিচয়পত্রটি হারিয়ে যায় অথবা কোনভাবে নষ্ট হয়ে যায়ঃ

তাহলে করনীয় ঃথানায় একটি সাধারন ডাইরী (জিডি)করতে হবে, জিডির ০১(এক) কপি ফটোকপি অত্রাফিসে জামা দিতে হবে। মূল জিডির কপিটি ও জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপিসহ (যদি থাকে) নিম্ন ঠিকানায় যোগাযোগ করতে হবে। 

খ। কারো যাদি জাতীয় পরিচয়পত্রের মধ্যে নিজ নামের ভূল, পিতার/স্বামীর নামের ভূল, বয়সের ভূল ইত্যাদি সংশোধনের প্রয়োজন হয় ঃ

তাহলে করনীয় ঃনামের ও বয়সের ভূলের ক্ষেত্রে স্কুল সার্টিফিকেট/ড্রাইভিং সাইসেন্স/জন্ম নিবন্ধনপত্র নিয়ে নিম্ন ঠিকানায় যোগাযোগ করতে হবে।

ঠিকানাঃ

উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়

দিঘীনালা, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা।

 

০৫। জাতীয় পরিচয়পত্রে রেজিষ্টেশন অফিসার/সহকারী রেজিষ্ট্রেশন অফিসার হিসেবে স্বাক্ষর প্রদান।

০৬। স্থানীয় সরকারের নির্বাচন পরিচালনা।

০৭। ভোটার তালিকা পরিদর্শন।

 তাহলে করনীয়ঃ সংর্শ্লষ্ট উপজেলায় আবেদন পত্রে ৫০ টাকার কোর্ট ফি জমা দিয়ে ভোটার তালিকা পরিদর্শন করতে পারবেন, যদি কেউ ছবি ছাড়া ভোটার তালিকা সংগ্রহ করতে চান তাহলে ১/০৬০১/০০০১/২৬৩১ কোডে নির্ধারিত খাতে ৫০০/- টাকা জমা প্রদান পূবর্ক সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিসে অবগতি করতে হবে। ছবিসহ ভোটার তালিকার কোন ফটোকপিও নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের অনুমিত/নির্দেশনা ছাড়া তৈরী করা যাবে না। ছবিসহ ভোটার তালিকা শূধুমাত্র নির্বাচনের দায়িত্ব নিয়োজিত কর্মকর্তাগণ ব্যবহার করবেন।  

০৮। নাগরিক সচেতনতামূলক কর্মসূচী তৈরী ও বাস্তবায়ন করা।


Share with :
Facebook Twitter